সোমবার, ১৫ই এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

অভিমান ভেঙেছে বৃষ্টি জনজীবনে ফিরেছে স্বস্তি

চিতলমারী প্রতিনিধিঃ
কয়েকদিনের প্রখর রোদ আর তীব্র দাবদাহে বিপর্যস্ত হয়ে ওঠে জনজীবন। একটু ছায়া ও স্বস্তির আশায় মানুষ ছুটেছে বৃক্ষ তলে। তবুও দেখা মেলেনি কাঙ্খিত বৃষ্টির। এ যেন মানবজাতির উপর বৃষ্টির পুরনো অভিমান। কি করে ভাঙ্গবে এই অভিমান। শুরু হয় উপজেলার বিভিন্ন মসজিদ ও মন্দিরে বিশেষ দোয়া ও প্রার্থনা। অবশেষে সকল মান-অভিমানের অবসান ঘটিয়ে শুরু হয়েছে শান্তির বৃষ্টি। বহু কাঙ্খিত এই বৃষ্টি জনজীবনে ফিরেছে স্বস্তি। শুধু মানবজীবনে নয় স্বস্তি ফিরেছে প্রাণীকুলেরও।
এ উপজেলার বেশিরভাগ মানুষ কৃষি ও মৎস্য নির্ভর হওয়ায় ব্যাপক হতাশায় ভুগছিলেন। করণ বৃষ্টি না হলে ফসলের যেমন ক্ষতি,তেমনিভাবে চিংড়ির ঘরের ব্যাপক ক্ষতির সম্মুখীন হওয়ার সম্ভবনা ছিল। কয়েকজন চিংড়ি চাষি বলেন, চিংড়ি আমাদের আয়ের প্রধান উৎস। আমরা চিংড়ির উপর নির্ভরশীল। কিন্তু দীর্ঘদিন বৃষ্টি না হওয়ার কারনে পানির সল্পতা দেখা দেখা দেয়। অনেকের ঘেরের মাছে ভাইরাস লেগে মাছ মারা গেছে। সেই সাথে বিভিন্ন প্রজাতির সবজির ক্ষেত অনাবৃষ্টিতে শুকিয়ে গেছে। একটু দেরি হলেও অবশেষে এই বৃষ্টি অনেক স্বস্তি ফিরেছে দিয়েছে আমাদের ।

সংবাদটি শেয়ার করুন

সর্বশেষঃ