সোমবার, ৪ঠা মার্চ, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

কাঁচা মরিচের ঝাঁজে দুর্বিষহ

তিমির বনিক, মৌলভীবাজার প্রতিনিধি:
মৌলভীবাজারে সব্জির দাম স্বাভাবিক থাকলেও কাঁচা মরিচের ঝাঁজে মূল্য তালিকায় লাগামহীন হয়ে পড়েছে। তিন-চার দিনের ব্যবধানে এবার কাঁচা মরিচের দাম ডাবল সেঞ্চুরি পার করলো। জেলা শহরের বিভিন্ন বাজারে কাঁচা মরিচের দাম এখন ২০০ টাকা পেরিয়েছে।
ব্যবসায়ীরা বলছেন, অনাবৃষ্টির কারণে উৎপাদন কমে যাওয়ায় কাঁচা মরিচের সরবরাহ কম। ফলে দাম বেড়েছে।
বুধবার (৩ আগস্ট) জেলা শহরের বেশ কয়েকটি কাঁচাবাজার ঘুরে দেখা যায়, কাঁচা মরিচ প্রতি কেজি ২০০ থেকে ২২০ টাকা দরে বিক্রি হলেও গত তিন দিন আগে বিক্রি হয়েছে ১৬০ থেকে ১৭০ টাকা দরে। অর্থাৎ তিন দিনের ব্যবধানে কেজি প্রতি বৃদ্ধি পেয়েছে অন্তত ৪০ টাকা করে।
কাঁচা মরিচ বিক্রেতারা অবশ্য সরবরাহ স্বল্পতাকে দুষারোপ করছেন। তাদের দাবি, দেশের বিভিন্ন স্থানে অনাবৃষ্টিতে কাঁচামরিচের উৎপাদন কম হওয়ায় সরবরাহ কমেছে। তাই বর্তমানে স্থানীয় বাজারে কাঁচা মরিচের দাম চড়া মূল্য বিক্রি হচ্ছে। যার জন্য বেশি দামে খুচরা বাজারে বিক্রি করতে হচ্ছে বলে তারা জানান।
কয়েকজন কাঁচামালের আড়ৎদার জানিয়েছেন, প্রতিদিন বাজারে কোনো না কোনো পণ্যের দাম বাড়ছে। এখন কাঁচামরিচের বাজারে ঝাঁজ বেশি। দুই সপ্তাহ আগেও প্রতি কেজি কাঁচামরিচ ১০০ থেকে ১২০ টাকা দরে বিক্রি হয়েছে। বর্তমানে ২০০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে সেই মরিচ।
টিসিমার্কেট এলাকার সব্জি বিক্রেতা রুবেল আহমদ জানান, বর্তমানে পাইকারি আড়তে কাঁচামরিচের সরবরাহ কম। আমাদের বেশি দামে কিনে বিক্রি করতে হচ্ছে।
শহরের পশ্চিমবাজারের নিয়মিত ক্রেতা সঞ্জিব দে বলেন, ‘বর্তমানে বাজারে যাওয়াই দূরহ হয়ে পড়েছে। একেতে পণ্যের দাম কমলে দশ পণ্যের দাম বাড়ে। সব্জির দাম কিছুটা কমলেও কাঁচা মরিচের দাম অতিরিক্ত বেড়েছে।’
নার্গস আক্তার নামের এক নারী ক্রেতা বলেন, ‘দুই-তিনদিনের ব্যবধানে কাঁচা মরিচের দাম বেড়েছে অস্বাভাবিক হারে। বাজার মনিটরিং ব্যবস্থা না থাকায় বেশি লাভের আশায় ব্যবসায়ীরা সিন্ডিকেটের মাধ্যমে ইচ্ছামত দাম বাড়িয়ে দিয়েছেন।’ যার যেভাবে ইচ্ছে খুশী মতো বিক্রি করছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

সর্বশেষঃ