সোমবার, ২৭শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

ঝিনাইগাতীতে সুদের টাকা আদায় করতে শিশু সন্তানকে উপহরণ, পুলিশের হস্তক্ষেপে উদ্ধার

আনিছ আহমেদ (শেরপুর) প্রতিনিধি
শেরপুরের ঝিনাইগাতে সুদের টাকা আদায় করতে না পেরে ঋণ গ্রহিতার শিশু সন্তান সম্রাট (১০)কে অপহরণের অভিযোগ উঠেছে মালিঝিকান্দা ইউনিয়নের দেবত্তরপাড়া গ্রামের মোফাজ্জল হোসেন’র (৪৫) বিরুদ্ধে। ১ আগষ্ট সোমবার সন্ধ্যায় পুলিশ নালিতাবাড়ী উপজেলার নলজুড়া বাজার থেকে অপহরণ শিশুটিকে উদ্ধার করে। অপহরণ সম্রাট এক‌ই গ্রামের আব্দুল হালিমের ছেলে। সে মালিঝিকান্দা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ২য় শ্রেনীর ছাত্র।
অপহরণ শিশুটির পরিবার ও পুলিশ সুত্রে জানা গেছে, বিগত ৭/৮ মাস পূর্বে এক‌ই গ্রামের মোফাজ্জলের কাছ থেকে ৫০ হাজার টাকা দাদন গ্রহন করে তার বাবা-মা। পরবর্তীতে ওই টাকার বিপরীতে সুদ বাবদ ১৮ হাজার টাকা ও দাদনের টাকা হত ১৫হাজার টাকাসহ মোট ৩৩ হাজার টাকা মোফাজ্জলকে তারা পরিশোধ করেন। অবশিষ্ট টাকা পরিশোধের জন্য সময় চাইলে মোফাজ্জল সুদাসলে ২ লক্ষ টাকা দাবী করেন। দাবীকৃত টাকা পরিশোধ না করায় কয়েকদিন আগে শিশুটির গার্মেন্টস শ্রমিক মা সুফিয়া খাতুনকে মোবাইল ফোনে তার ছেলেকে অপহরণ করা হবে বলে হুমকি দেয় মোফাজ্জল। এত অল্প সময়ে ২ লক্ষ টাকা পরিশোধ করতে অপরাগতা প্রকাশ করায় ৩১ জুলাই দুপুরে মোফাজ্জল শিশুটিকে অপহরণ করেন।

বিষয়টি নিয়ে এলাকায় তোলপাড় শুরু হলে ঝিনাইগাতী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মনিরুল আলম ভুইয়ার নির্দেশে এসআই রুবেল, এসআই হাবিবুর রহমান, এসআই সাকিব, এএসআই রাফেল চাম্বুগং সহ সঙ্গীয় পুলিশ নিয়ে সাড়াশী অভিযান চালিয়ে ১ আগষ্ট সোমবার সন্ধ্যায় নালিতাবাড়ী উপজেলার নলজুড়া বাজার থেকে শিশু সম্রাটকে উদ্ধার করেন। তবে পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে মোফাজ্জল পালিয়ে যায়।

এ ব্যাপারে শিশু সম্রাটের নানী জুলেখা বেগম বাদী হয়ে ঝিনাইগাতী থানায় অপহরণের অভিযোগে মামলা দায়ের করেছে। তবে এলাবাসী সূত্রে জানা যায়, মোফাজ্জল নিজে দাদন ব্যবসায়ী নয়। সে পার্শ্ববর্তী রাইস মিলের একজন শ্রমিক। তবে সে জামিনদার হয়ে অন্য এক দাদন ব্যবসায়ীর কাছ থেকে ওই টাকা নিয়ে দিয়েছিল। মোফাজ্জল পলাতক থাকায় তার বক্তব্য জানা সম্ভব হয় নাই।

ঝিনাইগাতী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মনিরুল আলম ভুইয়া ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, অপহরণের দায়ে থানায় মামলা হয়েছে। অপহরণ শিশুটিকে উদ্ধার করা হয়েছে। অপহরণকারী পলাতক রয়েছে। তাকে আটক করতে অভিযান চলছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

সর্বশেষঃ