সোমবার, ১৫ই এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

ট্রাক-বাসের ঘর্ষণে কেটে গেলো নারীর হাত

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি

‘যশোর থেকে বাসে ওঠার পর বারবার বলছিলাম বাম সাইডে সিট ফাঁকা আছে, আমি বাম সাইডেই বসবো। কিন্তু বাসের লোক আমাকে বাম সাইডের বদলে ডান সাইডে জোর করে বসায়। এরপরই দ্রুতগতিতে বাসটি চলতে থাকে। পথে কালীগঞ্জে এলে একটি ট্রাককে অতিক্রম করার সময় আমার হাতটি কেটে পড়ে যায়। আমি আর কখনো ডান হাত ফিরে পাবো না।’এভাবেই কথাগুলো বলতে বলতে হাসপাতালের শয্যায় জ্ঞান হারিয়ে ফেলেন গৃহবধূ সুফিয়া (৪২)।

বৃহস্পতিবার (১৬ জুন) দুপুর ২টা ৫০ মিনিটে ঝিনাইদহের কালীগঞ্জের মোবারকগঞ্জ চিনিকল এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।আহত সুফিয়ার বাড়ি সাতক্ষীরায়। তিনি বাসযোগে শৈলকুপা উপজেলার হরিহরা গ্রামে মেয়ের বাড়ি বেড়াতে যাচ্ছিলেন। তবে সাতক্ষীরা জেলার কোনো জায়গায় তার বাড়ি এবং শৈলকুপায় কোন আত্মীয়ের বাড়িতে যাচ্ছিলেন তা জানা যায়নি।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, দুপুর আড়াইটার দিকে গড়াই পরিবহনের একটি যাত্রীবাহী বাস দ্রুতগতিতে যশোর থেকে ঝিনাইদহের দিকে আসছিল। পথে কালীগঞ্জের মোবারকগঞ্জ চিনিকল এলাকায় পৌঁছালে সামনের দিক থেকে আসা একটি ট্রাককে অতিক্রম করছিল। এ সময়ই কাটা পড়ে সুফিয়ার ডান হাত।ধারণা করা হচ্ছে, সুফিয়া তার ডান হাত জানালার বাইরে বের করে রেখেছিলেন। ট্রাকের ঘর্ষণে তা কেটে পড়ে যায়। কাটা হাতটি রাস্তায় থ্যাঁতলানো অবস্থায় পাওয়া গেছে।

কালীগঞ্জ ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন অফিসার শেখ মামুনুর রশিদ বলেন, ‘ঘটনাস্থলে গিয়ে এক নারীর রক্তমাখা কাটা হাত পেয়েছি। তবে আশপাশের এলাকায় খোঁজ নিয়ে আহত কোনো রোগী পাওয়া যায়নি। পরে জানা যায়, আহত ওই নারীকে ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।’

ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক জোবায়দা বলেন, ‘আহত নারীর ডান হাত কেটে পড়ে গেছে। এ কারণে প্রচুর রক্তক্ষরণ হয়েছে। তার শারীরিক অবস্থাও খুবই খারাপ। তাকে উন্নত চিকিৎসা জন্য ঢাকা পঙ্গু হাসপাতালে রেফার করা হয়েছে।

’ঝিনাইদহ জেলা বাস মিনিবাস মালিক সমিতির পরিচালনা পরিষদের সভাপতি রোকনুজ্জামান রানু জানান, যশোর থেকে আসা গড়াই পরিবহনের মাছরাঙ্গা ট্রাভেলসের একটি গাড়িতে এমন ঘটনা ঘটেছে। আহত নারীকে ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

সর্বশেষঃ