রবিবার, ১৪ই এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

ঠাকুরগাঁওয়ে তুচ্ছ ঘটনায় বিধবা মহিলা ও তার দুই মেয়েকে মারধর

ফরিদুল ইসলাম রঞ্জু, ঠাকুরগাঁও
ঠাকুরগাঁওয়ে তুচ্ছ ঘটনায় বিধবা মহিলা ও তার দুই মেয়েকে মারধরের অভিযোগ পাওয়া গেছে।
ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার চিলারং ইউনিয়নের বানিয়াপাড়ায় বৃহস্পতিবার এই ঘটনা ঘটেছে।
বানিয়াপাড়ার মৃত আমিরউদ্দিনের মেয়ে মিনা অভিযোগ করে বলেন,তার চাচা শাহজাদ উদ্দিনের পাশাপাশিই তারা বসবাস করে আসছে। একসময় তাদের বাড়ির টিউবওয়েল তার চাচার বাড়ির ভেতর ছিল। কিন্তু তাদের প্রবল আপত্তির কারণে তারা জমির আমিন ডেকে তাদের সীমানায় ঘেরা দিয়ে তাদের জায়গায় টিউবওয়েল বসায়। কিন্তু পানি নিস্কাশনের জায়গা না থাকায় পানি তার চাচার দেওয়ালের পাশে গিয়ে জড়ো হয়। এই ঘটনায় তার চাচী এবং চাচাতো ভাইয়েরা দীর্ঘদিন যাবত খারাপ ভাষা ব্যাবহার করে তাদের গালিগালাজ করতে থাকে। বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে দশটার দিকে আমির উদ্দিনের বিধবা স্ত্রী কুলসুম টিউবওয়েল পাড়ে গেলে শাহজাদ উদ্দিনের স্ত্রী লতিফা, ছেলে সুরুজ জামান, আমিন জামান এবং মেয়ে নূরি অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে বাঁশ ও লাঠিসোঁটা নিয়ে তাকে মারধর করতে থাকে। এসময় মিনা এগিয়ে গেলে তাকেও মারধর করে। এতেও ক্ষ্যান্ত হয়নি তারা। কুলসুমের পাঁচ মাসের সিজারিয়ান মেয়ে আনার কলি এগিয়ে গেলে তার পেটে সজোড়ে লাথি মারে সুরুজ জামান।পরে আহত অবস্থায় ৯৯৯ -এ ফোন দিলে ঠাকুরগাঁও সদর থানার এসআই পীযুষ কুমার ঘটনাস্থল থেকে তাদের উদ্ধার করে ঠাকুরগাঁও ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করেন।কুলসুম আরও অভিযোগ করেন,সুরুজ জামান সেনাবাহিনীতে চাকুরির সুবাধে সেই গরম দেখায় সবসময় এবং এলাকায় আসলে একটা না একটা ঘটনা ঘটায়।এই ঘটনায় ঠাকুরগাঁও সদর থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।
ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে এসআই পীযুষ বলেন লিখিত অভিযোগ পেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

সর্বশেষঃ