বৃহস্পতিবার, ৩০শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

পদ্মা সেতুতে পিকআপে পণ্য হিসেবে মোটরসাইকেল নিতে পারবে, ড্রাইভার নয়

মুন্সীগঞ্জ প্রতিবেদক

নিরাপত্তা বিবেচনায় পদ্মা সেতুতে যান চলাচলের দ্বিতীয় দিন ভোর ৬টা থেকে বন্ধ রয়েছে মোটরসাইকেল চলাচল। আজ তৃতীয় দিনেও একই চিত্র বহাল রয়েছে। তবে পণ্য হিসেবে পিকআপে করে মোটরসাইকেল সেতু পারাপার করা যাবে বলে। এক্ষেত্রে কোনো যাত্রী থাকতে পারবে না সেসব মোটরসাইকেলের সঙ্গে। পদ্মা সেতুর মাওয়া টোল প্লাজায় দায়িত্বরত বাংলাদেশ সেতু কর্তৃপক্ষের তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলীয় তোফাজ্জল হোসেন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, মোটরসাইকেল যদি পণ্য হিসেবে পিকআপে করে ঢেকে নিয়ে যায় তাহলে যেতে পারবে। কিন্তু যাত্রী বা আরোহীসহ মোটরসাইকেল নিয়ে পিকআপ যেতে পারবে না। কারণ মোটরসাইকেল ও আরোহীরা একসঙ্গে পিকআপে গেলে তারা সেতুতে নামতে পারে। দেখা গেলো ৫-৬ জন মিলে মোটরসাইকেল নামিয়ে সেতুতে চালাবে। এই আশংকায় আমরা যাত্রী ও মোটরসাইকেল একসঙ্গে পার হতে দিচ্ছি না। মোটরসাইকেলের যাত্রীরা আলাদা যাবে পিকআপে শুধু মোটরসাইকেল পার হতে পারবে। সেভাবে যেতে দেওয়া হচ্ছে।

তিনি আরো বলেন, টোল আদায় কার্যক্রম আজ সুষ্ঠু সুন্দরভাবে চলছে। আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতিও ভালো, কোনো যানজট নেই। দ্বিতীয় দিনেও প্রায় দুই কোটি টাকার মতো টোল আদায় হয়েছে। গাড়ির সংখ্যা ছিলো সাড়ে ১৫হাজার।

এদিকে যান চলাচল চালুর তৃতীয় দিনে পদ্মা সেতুতে আজ চাপ অনেকাংশে কম। এতে ব্যক্তিগত, পণ্যবাহী ও গণপরিবহনসহ অন্যান্য গাড়ি স্বাচ্ছন্দ্যে সহজেই নির্ধারিত টোল দিয়ে সেতু পার হতে পারছে। শৃঙ্খলা রক্ষায় কাজ করছে পুলিশ ও সেনাবাহিনী।

মাওয়া প্রান্তে টোল প্লাজা ও অভিমুখে পদ্মা সেতু উত্তর থানার মোড় থেকে মোটরসাইকেল আরোহীদের সতর্ক করে বিকল্প পথ ব্যবহারের পরামর্শ দিচ্ছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। অনেক মোটরসাইকেল এরপরও টোল প্লাজায় দফায় দফায় আসছে। সেতুতে ছবি তোলা, থামলে ও গাড়ি থেকে নামলে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের বিষয়ে টোলপ্লাজায় মাইকিং ও টহল দিচ্ছে সেনাবাহিনী।

তবে জরুরি প্রয়োজনে সেতু পারাপার হতে আসা মোটরসাইকেল আরোহীরা ভোগান্তি কমাতে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণের দাবি জানিয়েছে। মুন্সিগঞ্জের মাওয়া প্রান্তে ৫টি বুথ দিয়ে আদায় হচ্ছে টোল।

সংবাদটি শেয়ার করুন

সর্বশেষঃ