বুধবার, ১০ই এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

পীরগঞ্জে ১৪৪ ধারা জারি একই স্থানে বিএনপি-আওয়ামী লীগের কর্মসূচি

পীরগঞ্জ(ঠাকুরগাও)প্রতিনিধি

বিএনপি এবং আওয়ামী লীগ একই সময়ে একই স্থানে কর্মসূচি ডাকায় ঠাকুরগাঁওয়ের পীরগঞ্জে রবিবার সকালে ১৪৪ ধারা জারি করে প্রশাসন।

এর প্রতিবাদে বিকালে সংবাদ সম্মেলন করেছেন উপজেলা বিএনপি। পাল্টা সংবাদ সম্মেলন করেছে উপজেলা আওয়ামী লীগও।

পীরগঞ্জ থানার ওসি জাহাঙ্গীর আলম জানান, ববিবার (২৮ আগস্ট) পীরগঞ্জ পৌর শহরে একই স্থানে ও একই সময়ে বিএনপি এবং আওয়ামী লীগ তাদের নিজ নিজ কর্মসূচি পালনে অনড় থাকায় আইনশৃঙ্খলা ও জনগণের নিরাপত্তার স্বার্থে পৌর এলাকার পূর্ব চৌরাস্তা, পশ্চিম চৌরাস্তা ও মুন্সিপাড়া মাইক্রোস্ট্যান্ডসহ আশেপাশের এলাকায় বরিবার দুপুর ১২ টা থেকে রাত ৮ টা পর্যন্ত ফৌজাদারী কার্যবিধির ১৪৪ ধারা জারি করা হয়। এ সময়ে নিষিদ্ধ করা হয় সকল প্রকার সভা, সমাবেশ ও গনজমায়েত।

জেলা প্রশাসনের সাথে কথা বলে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট শাহরিয়ার নজির ১৪৪ ধারা জারি করেন। শহরের গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়।এদিকে প্রশাসন ১৪৪ ধারা জারি করার কারণে বিএনপি তাদের পূর্ব নির্ধারিত কর্মসূচি পালন করতে পারেনি। বিএনপি’র শান্তিপূর্ন কর্মসূচিতে আওয়ামী লীগ প্রশাসন দিয়ে ১৪৪ ধারা জারি করিয়ে জনগণের বাক স্বাধীনতা এবং মৌলিক অধিকারের প্রতি চরম ও নগ্ন আঘাত করেছেন এবং বিএনপির বিশাল জনসম্পৃক্ততায় সরকার চরম ভীত ও উদ্বিগ্ন হয়ে পড়েছেন দাবি করে প্রতিবাদ জানিয়ে বিকালে সংবাদ সম্মেলন করেছে উপজেলা বিএনপি।

এতে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন ঠাকুরগাও-৩ আসনের জাতীয় সংসদ সদস্য ও উপজেলা বিএনপির সভাপতি জাহিদুর রহমান। তিনি দাবি করেন, জ্বালানি তেল, সার ও নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যমুল্যের উর্ধ্বগতির প্রতিবাদে বিএনপির পূর্বঘোষিত কেন্দ্রীয় কর্মসূচীর অংশ হিসেবে পীরগঞ্জে তা শান্তিপূর্ণভাবে পালন করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। গত ২১ আগস্ট বিষয়টি পুলিশ সুপারকে লিখিতভাবে জানানো হয়। কোন কিছু না জানিয়ে সমাবেশ শুরুর আগ মুহুর্তে আকস্মিকভাবে প্রশাসনের ১৪৪ ধারা জারি করার হটকারী সিদ্ধান্তে দলীয় নেতা-কর্মীদের মধ্যে ক্ষোভের সঞ্চার হয়েছে এবং প্রশাসনের প্রতি সাধারণ মানুষের বিরুপ ও নেতিবাচক ধারণার সৃষ্টি করেছে। তারা এর তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান।

এ সময় উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক জিয়াউল ইসলাম জিয়া, পৌর বিএনপির সভাপতি রুহুল আমিন, সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করিম রাজাসহ বিএনপি এবং এর অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতা-কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন। অপরদিকে সারাদেশে বিএনপির নৈরাজ্য সৃষ্টি ও শান্তিপ্রিয় পীরগঞ্জবাসীর দুর্ভোগ সৃষ্টির প্রতিবাদে বরিবার বিকালে দলীয় কার্যালয়ে পাল্টা সংবাদ সম্মেলন করেছেন উপজেলা আওয়ামী লীগ। এতে দাবি করা হয়, বিএনপি সারাদেশে নৈরাজ্য সৃষ্টি করে চলছে। দলীয় কর্মসূচির নামে শান্তিপ্রিয় পীরগঞ্জবাসীকে চরম দুর্ভোগে ফেলেছে। এর জন্য বিএনপির সকল নৈরাজ্যপূর্ণ কর্মসূচি রাজপথেই রাজনৈতিকভাবে মোকাবেলা করা হবে।

এসময় উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাবেক এমপি ইমদাদুল হক, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক রেজওয়ানুল হক বিপ্লবসহ দলের অন্যান্য নেতা-কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

১৪৪ ধারা জারি প্রসঙ্গে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট শাহরিয়ার নজির বলেন, উভয় দলের কর্মসূচি অব্যাহত থাকলে পৌর এলকার বিভিন্ন মোড়ে যান চলাচলের বিঘ্ন সৃষ্টিসহ গাড়ি ভাংচুর, ব্যক্তিগত ও সরকারি সম্পত্তির ক্ষতিসাধন এবং আইন-শৃঙ্খলা বিঘ্ন সৃষ্টি হওয়ার সমূহ সম্ভাবনা ছিল। কারো প্ররোচনায় নয়-আইনশৃঙ্খলা ও জনগণের নিরাপত্তার স্বার্থে ১৪৪ ধারা জারি করা হয়।

সংবাদটি শেয়ার করুন

সর্বশেষঃ