মঙ্গলবার, ১৬ই এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

মধ্যরাতে বাসাবাড়ি ‘ডাকাতদলের’ হানা, ’স্বর্ণ, টাকা লুট’

রাজিউল হাসান পলাশ (সাভার)

ঢাকার ধামরাইয়ে মধ্যরাতে বাসবাড়িতে ঢুকে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে বিপুল পরিমাণ স্বর্ণালঙ্কার ও নগদ টাকা লুটের অভিযোগ উঠেছে। ভুক্তভোগীদের দাবি, ১৬ ভরি স্বর্ণ ও প্রায় ৪ লাখ টাকা লুটে নিয়েছে ডাকাতরা।
এঘটনায় শনিবার দুপুরে গাঙ্গুটিয়া ইউনিয়নের বারবাড়িয়া গ্রামের ভুক্তভোগী গদাধর হালদারের বাড়ি পরিদর্শন করেছে ধামরাই থানা পুলিশ।
শুক্রবার দিবাগত রাত ২টার দিকে তাদের বাড়িতে ডাকাতদল হানা দেয় বলে জানায় ভুক্তভোগীরা।
ভুক্তভোগী গধাধর হালদারের স্ত্রী বিভা রানী নিউজবাংলাকে বলেন, ‘আমার চার ছেলের বিয়ে হয়েছে। চাকরিজীবী মেজো ও ছোট ছেলে পরিবার নিয়ে ঢাকায় থাকে। মুদি দোকানী বড় ছেলে ও মাছ ব্যবসায়ী সেজো ছেলে আমাদের সাথে এখানে থাকে। একি জায়গায় টিনশেডের একটি বাড়ির চারটি কক্ষে সেজো ছেলে ও তার পরিবারসহ আমরা স্বামী-স্ত্রী থাকি। পাশেই দুই কক্ষ বিশিষ্ট আরেকটি বাড়িতে থাকে বড় ছেলে ও তার স্ত্রী, সন্তান।’
তিনি আরও বলেন, ‘গতকাল রাত ২টার দিকে দরজায় শব্দ শুনে আমার ঘুম ভাঙ্গলে উঠে যাই। এসময় কিছু বুঝে ওঠার আগেই চারজন ঘরে ঢুকে আমার গলায় ঢুকে চাকু ধরে বলে, শব্দ করবি না। তখন জিজ্ঞেস করলে, তারা থানা থেকে আসছে বলে জানায়। আমার ঘরে অস্ত্র আছে। তখন চিৎকার দিতে গেলে ডাকাতরা আমাকে মেরে ফেলবে বলে। এসময় আমার গলার চেইনটা ছিরে নেয়। এরপর সব গুলো ঘরের আলমারিতে লুটতরাজ চালায়। আমার ঘরে বড় ছেলের স্ত্রী ও আমার ১৬ ভরি গয়না ও নগদ প্রায় ৪ লাখ টাকা ছিলো। তারা সব নিয়ে চলে গেছে। পরে বুঝতে পারি বাড়ির পেছনের জানালার গ্রিল কেটে ডাকাতরা ঢুকছিলো।’
ধামরাই থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) আরাফাত উদ্দিন বলেন, ‘খবর পেয়ে আমরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। একটি জানালার গ্রিলকেটে চুরির উদ্দেশ্যে বাড়ির ভিতরে প্রবেশ করেছিল দুর্বৃত্তরা। তবে বাড়ির লোকজন জেগে যাওয়ায় অস্ত্রের মুখে তারা লুটতরাজ করেছে বলে ধারণা করছি। উর্ধ্বতন কর্মকর্তার নির্দেশে পরবর্তীতে এঘটনায় আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

সংবাদটি শেয়ার করুন

সর্বশেষঃ