সোমবার, ১৫ই এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

রাতের আঁধারে আবাদী জমিতে খাল খননের অভিযোগ চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি
ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ উপজেলার জটারপাড়া গ্রামে আবাদী জমিতে জোরপূর্বক খাল খনন করা হচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে। কালীগঞ্জের রায়গ্রাম ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আলী হোসেন অপু জোর করে আবাদী জমির উপর দিয়ে নতুন একটি খাল খনন করছেন। এ ঘটনায় এলাকার কৃষকদের মাঝে ক্ষোভ দেখা দিয়েছে। চেয়ারম্যানের পেশী শক্তির কারণে ক্ষতিগ্রস্থ কৃষকরা প্রতিবাদ করতে সাহস পাচ্ছে না। তবে তারা কালীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কাছে একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। তথ্য নিয়ে জানা গেছে, জমির মালিকদের সাথে কোন রকম আলাপ আলোচনা ও সম্মতি ছাড়াই মালিকানা জমিতে রাতের আঁধারে খাল খনন শুরু করেছেন চেয়ারম্যান। জটারপাড়া গ্রামের আতিয়ার রহমান আতি মন্ডল, আব্দুস সাত্তার মন্ডল, আবু বক্কার বিশ্বাস, ইসলাম মোল্লা ও রফিউদ্দীন বিশ্বাসের জমিতে জোরপূর্বক গত সোমবার মধ্য রাত থেকে খাল খনন শুরু করে। এ সময় চেয়ারম্যান আলী হোসেন অপু সেখানে উপস্থিত ছিলেন। চেয়ারম্যানকে খাল খনন করতে বাঁধা দিলে তিনি জোরপূর্বক ভেকু মেশিন দিয়ে খাল খনন করতে থাকেন। বিষয়টি রাতেই স্থানীয় প্রশাসনকে জানানো হয়। পরে পুলিশ আসলে মাঠেই ভেকু মেশিন রেখে পালিয়ে যায় চেয়ারম্যান ও তার লোকজন। তোফাজ্জেল হোসেন নামে এক কৃষক জানান, সোমবার দিবাগত রাত ১ টার দিকে ভেকু মেশিনের শব্দ শুনতে পাই। এ সময় তিনি মাঠে গিয়ে দেখতে পান মালিকানা জমিতে খাল খনন করা হচ্ছে। চেয়ারম্যান নিজে দাঁড়িয়ে ছিলেন সে সময়। খাল খনন করতে বাঁধা দিলেও তিনি শোনেননি। শাহাদৎ বিশ্বাস নামের আরেক কৃষক জানান, তাদের জমির আশেপাশে কোন খাস জমি নেই। চেয়ারম্যান জোরপূর্বকভাবে খাল খনন করছেন। এতে অনেক কৃষক ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে। খাল খনন করলে যেখানে কৃষকদের উপকৃত হওয়ার কথা সেখানে অপরিকল্পিত খাল কৃষকদের সর্বনাশ ডেকে আনছে। এই খাল খননের ফলে এলাকার হাজার হাজার একর কৃষি জমি ক্ষতিগ্রস্থ হবে। বিষয়টি নিয়ে রায়গ্রাম ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আলী হোসেন অপুর মোবাইলে একাধিকবার ফোন করা হলেও তিনি ফোন রিসিভ করেননি। কালীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার সাদিয়া জেরিন জানান, এ বিষয়ে একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। অভিযোগ পাওয়ার পর খাল খনন বন্ধ রাখতে বলা হয়েছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

সর্বশেষঃ